শিরোনামঃ

চীনের কাছে প্রতিঘণ্টার ক্ষতিপূরণ চাইলো জার্মানি

সারাবিশ্ব যখন করোনাভাইরাসের কারণে চীনের দিকে তীর ছুড়ছে তখন জার্মানি দেশটির কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করে বসেছে। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স বলছে, চীন করোনাভাইরাস সম্পর্কে আগেথেকেই সবকিছু জানতো। তারা চাইলে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে পারতো। কিন্তু তারা তা করেনি। আর এই বৈশ্বিক মহামারির কারণে চীনই দায়ী। আর এজন্য দেশটিকে ফল ভোগ করতে হবে।

এতো অভিযোগের ধকল সামলে উঠার আগে রোববার (১৯ এপ্রিল) বার্লিন বেইজিংয়ের কাছে ১৩০ বিলিয়ন পাউন্ড ক্ষতিপূরণ দাবি করে।

চীনের কাছে জার্মানি পর্যটন ব্যবসায় ২৭ বিলিয়ন, চলচ্চিত্র বাজার ৭.২ বিলিয়ন, ক্ষুদ্র ব্যবসার জন্যে ৫০ বিলিয়ন ও দেশটির এয়ারলাইন্স লুফথানসার প্রতি ঘন্টার জন্যে ১ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতিপূরণ চেয়েছে। জার্মানির দাবি, করোনার কারণে দেশটির জিডিপি ৪.২ শতাংশ হ্রাস পেলে দেশটির প্রতিটি নাগরিককে ১ হাজার ৭৮৪ ইউরো ক্ষতিপূরণ গুণতে হবে।

এদিকে জার্মানির এ দাবিকে বেইজিং ভীতি ও জাতীয়তাবাদের চরম বহিঃপ্রকাশ বলে উড়িয়ে দিয়েছে চীন। এছাড়া উহানে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা আগের চেয়ে আরো ৫০ শতাংশ বাড়ার পর বেইজিংকে আরো সন্দেহের চোখে দেখছে আন্তর্জাতিক বিশ্ব। মার্কিন গোয়েন্দাদের সঙ্গে ব্রিটিশ গোয়েন্দারা একযোগে করোনার প্রকৃত কারণ তদন্ত করছে।

তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প চীনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, যদি এটা চীনের ভুল হয়ে থাকে তবে সেটা ভুল। কিন্তু তারা যদি জেনেশুনে এ ভুল করে তবে এরজন্য তাকে চরম মূল্য দিতে হবে।

অন্যান্য খবর পড়ুন