শিরোনামঃ

‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, সড়ক হবে সংস্কার’

সাইফুল ইসলাম সুমনঃ ‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, সড়ক হবে সংস্কার’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় মাসব্যাপী গ্রামীণ সড়ক রক্ষাবেক্ষণ ও সংস্কার কাজ শুরু করেছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) মৌলভীবাজার। পুরো অক্টোবর মাস সহ বছর জুরেই জুড়ী উপজেলার গ্রামীণ সড়কগুলোর সংস্কার কাজ করবে এলজিইডি। তারা এই কর্মসূচির নাম দিয়েছে গ্রামীণ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ মাস।

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে জুড়ী উপজেলার গোয়ালবাড়ী-ফুলতলা সড়কে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন এলজিইডির সিলেট বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ নজরুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এলজিইডির মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আজীম উদ্দীন সরদার, এলজিইডির সিলেট কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: ইব্রাহিম মিয়া, নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো: আকবর আলী, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারি প্রকৌশলী দীপক কুমার দাস, জুড়ী উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন সহ এলজিইডির কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

এলজিইডির কর্মকর্তারা বলেন, অক্টোবর মাস-কে ‘গ্রামীণ রক্ষণাবেক্ষণ মাস’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এ মাসে সারা দেশে এলজিইডির ‘ভ্রাম্যমাণ মেরামতকারী দল (মোবাইল মেইনটেইনেন্স টিম বা এমএমটি)’ ভাঙাচোরা গ্রামীণ সড়ক সংস্কার করবে। এ কর্মসূচীর আওতায় গোয়ালবাড়ী-ফুলতলা সড়ক সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়। সড়কটির দৈর্ঘ্য ১১ কিলোমিটার। সরেজমিনে দেখা গেছে, সড়কটির বিভিন্ন স্থান গর্তে ভরা। ঝুঁকি নিয়ে যান চলাচল করছে। এমএমটির সদস্যরা গাড়িতে বিভিন্ন সরঞ্জাম নিয়ে গিয়ে গর্তগুলো ভরাট করে দিচ্ছেন।

এলজিইডির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘যান চলাচলের কারণে সড়কে সৃষ্ট ছোট গর্তগুলো ধীরে ধীরে বড় হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে পুরো সড়কটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ছোট গর্তগুলো সংস্কার করে ফেললে বড় ধরনের ক্ষতি থেকে পুরো সড়ককে রক্ষা করা যায়। সড়কের স্থায়ূত্ব বাড়ে। এ কাজে খরচও কম পড়ে। এটাকে ছোট কাজে বড় লাভ বলা যায়।’

নির্বাহী প্রকৌশলী আজীম উদ্দীন সরদার বলেন, এ কর্মসূচীর আওতায় মৌলভীবাজার জেলার বিভিন্ন স্থানে ৮৫ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার করা হবে। সড়কে সংস্কার কাজ করবে এলজিইডির নিয়োগকৃত কয়েক শতাধিক নারী কর্মী। তারা সড়কের খান্দাখন্দ ভরাট, সোল্ডারে মাটি সরে গেলে সেটি সংস্কার, সড়কের পাশে থাকা আগাছা পরিষ্কারসহ নিরাপদ চলাচলের জন্য বিভিন্ন সংস্কার কাজ করবে। এছাড়া এলজিইডির নিয়োগকৃত একটি শ্রমিক দল পাকা অংশের ছোট ছোট ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামত করবেন।

জুড়ী উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মতিন বলেন, ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার সড়ক হবে সংস্কার’ এই চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সারাদেশে গ্রামীণ সড়কের নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ কার্যক্রম জোরদার করার জন্য অক্টোবর ২০২০ এবং মার্চ ২০২১-কে রক্ষণাবেক্ষণ মাস হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। ‘‘শহরের সব সুযোগ-সুবিধা গ্রামগঞ্জে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ এর পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে। এটি বাস্তবায়িত হলে নগর এবং গ্রামের বৈষম্য দূর হবে।’’ এ কর্মসূচীর আওতায় জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ১০/১৫ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার করা হবে।

এদিকে ওইদিন সকালে এলজিইডির সিলেট বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ নজরুল ইসলাম জুড়ী উপজেলা প্রশাসনের সাথে এক মতবিনিময় সভা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ মোঈদ ফারুক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল-ইমরান রুহুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ওমর ফারুক সহ উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।

অন্যান্য খবর পড়ুন