শিরোনামঃ

মৌলভীবাজারের জুড়ীতে কেটিভি বাংলার ৪র্থ বর্ষপূর্তি উদযাপন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ ডিজিটাল টেলিভিশন কেটিভি বাংলা ৩ জানুয়ারি ৪ বছর পেরিয়ে ৫ম বর্ষে পদার্পন করে। এ উপলক্ষে সোমবার (১১ জানুয়ারি) মৌলভীবাজারের জুড়ীতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠিত হয়।

ওইদিন সকাল ১১ টায় স্থানীয় মক্তদীর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে কেটিভি বাংলার মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম সুমনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-ইমরান রুহুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমান, জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সঞ্জয় চক্রবর্তী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মাসুক আহমদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাছুম রেজা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা একাডেমীক সুপারভাইজার আলা উদ্দিন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ইসহাক আলী, জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক তাজুল ইসলাম, জুড়ী উপজেলা সাংবাদিক সমিতির সহ সভাপতি কল্যাণ প্রসূন চম্পু, মামুনুর রশিদ, হারিস মোহাম্মদ, সহ সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান খান, জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাহাব উদ্দিন সাবেল, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক মোঃ মুজিবুর রহমান, উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারি শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক ফখর উদ্দিন, উপজেলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ভূইয়া, উপজেলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সহ সভাপতি রফিকুল ইসলাম, মক্তদীর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক সেলিম আহমেদ, গৌছ উদ্দিন, পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়ন দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ সভাপতি কাজী আমজাদ হোসেন প্রমূখ।

আলোচনা সভা শেষে কেটিভি বাংলার ৪র্থ বর্ষপূর্তির কেক কাটা হয় এবং কেটিভি বাংলায় মৌলভীবাজারসহ জুড়ীর বিভিন্ন প্রকাশিত সংবাদগুলো প্রজেক্টারের মাধ্যমে প্রদর্শন করা হয়। এছাড়া অতিথিদের মাঝে কেটিভি বাংলার পক্ষথেকে ২০২১ সালের ক্যালেন্ডার বিতরন করা হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, স্যাটেলাইট টেলিভিশন গুলোর সীমানা নির্ধারন থাকে, কিন্তু ইন্টারনেট ভিত্তিক ডিজিটাল টেলিভিশন গুলোর কোন সীমা রেখা নেই, মুহুর্তেই পৌছে যায় বিশ^ দরবারে। পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত থেকেই দেখা যায় এই ডিজিটাল টেলিভিশন। স্বাধীনতার চেতনাকে বুকে ধারন করে এগিয়ে যাচ্ছে কেটিভি বাংলা। উপস্থিত সকলেই কেটিভি বাংলার সফলতা কামনা করেন।

অন্যান্য খবর পড়ুন