শিরোনামঃ

জুড়ীতে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিলির বাংলোয় ঐতিহ্যবাহী চুঙ্গা পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত

বিশেষ প্রতিনিধিঃ পিঠা বাঙালীর খাদ্য সংস্কৃতির অন্যতম ঐতিহ্য। বাংলাদেশের প্রতিটি জনপদে কোন না কোন পিঠা পাওয়া যায়। স্বাদ ও গুণে প্রত্যেক অঞ্চলের পিঠা অনন্য। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মতো সিলেট অঞ্চলেও রয়েছে পিঠার নিজস্ব ঐতিহ্য। বিভিন্ন ধরনের ও বিভিন্ন স্বাদের পিঠা বানানো হয় সিলেট অঞ্চলে। ঢলু বাঁশের লম্বা সরু চোঙ্গায় বিন্নি চালের গুঁড়া। নাড়ার আগুনে বাঁশের ভেতর সেদ্ধ হয়ে তৈরি হলো লম্বাটে সাদা পিঠা। চোঙ্গার ভেতরে তৈরি বলে এর নাম চুঙ্গা পিঠা।

সম্প্রতি মৌলভীবাজারের জুড়ীতে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গুলশান আরা চৌধুরী মিলি তাঁর বাছিরপুরস্থ বাংলোয় ঐতিহ্যবাহী চুঙ্গা পিঠার উৎসব করেন। শীতের কনকনে রাতে ঘটা করে এরকম একটি বিলুপ্ত প্রায় পিঠা চুঙ্গা পিঠা উৎসবের আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিছবাহুর রহমান, বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ, জুড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলতলা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, বড়লেখা পৌরসভার মেয়র আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, বড়লেখা থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার, জুড়ী থানার ওসি সঞ্জয় চক্রবর্তী, জুড়ী টিএনখানম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ফরহাদ আহমদ, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জাকারিয়া মাহমুদ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ ওমর ফারুক, পূর্বজুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন আহমদ, পশ্চিমজুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান শ্রীকান্ত দাস, জায়ফরনগর ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মাছুম রেজা, গোয়ালবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন আহমদ লেমন, সাগরনাল ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল ইসলাম চৌধুরী লিয়াকত, আওয়ামীলীগ নেতা মাসুক আহমদ, আব্দুল কাদির, আব্দুল কাদির দারা, মিজানুর রহমান খোকন, আব্দুস সালাম, আব্দুল লতিব, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ সাজু, জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি মঞ্জুরে আলম লাল, জুড়ী উপজেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সুমন, যুবলীগ নেতা এডভোকেট আব্দুল মতিন, শাহ আলম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাহবুবুল ইসলাম কাজল, এমএ মুজিব মাহবুব, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রুশমতে আলম, মামুনুর রশিদ, নুরুল আম্বিয়া, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হুমায়ুন রশিদ রাজি, জায়ফরনগর ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান মিলাদ চৌধুরী, জুড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইকবাল ভূইয়া উজ্জ্বল প্রমুখ।

জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী, শিক্ষক, কবি, সাহিত্যিক, সংস্কৃতিকর্মী, সমাজসেবী সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রায় ২/৩’শ লোকের উপস্থিতিতে জমে উঠেছিল হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্য গ্রাম বাংলার চুঙ্গা পিঠা উৎসব। এমন আয়োজনের জন্য উপস্থিত সবাই জুড়ী উপজেলার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গুলশান আরা চৌধুরী মিলিকে অভিনন্দন জানান।

অন্যান্য খবর পড়ুন