শিরোনামঃ

জুড়ীতে বেগম রোকেয়া দিবস পালন

জুড়ী টাইমস সংবাদঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস-২০২০ উপলক্ষে ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় উপজেলার জয়িতাদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বুধবার বেলা ২টায় উপজেলা সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল-ইমরান রুহুল ইসলাম এঁর সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুজা-উদ-দৌলা-এর পরিচালনায় জয়িতাদের সংবর্ধনা অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) রনজিতা শর্মা।

উক্ত অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: জসিম উদ্দিন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাহবুবুল ইসলাম কাজল, জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরে আলম লাল, জুড়ী উপজেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সুমন, জুড়ী প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম। জুড়ী উপজেলায় চারজন শ্রেষ্ঠ জয়িতার মধ্যে সফল জননী আলহাজ্ব রোকেয়া বেগম, অর্থনৈতিক ভাবে সাফল্য অর্জনকারী মোছা: ফাতেমা বেগম, শিক্ষা ও চাকুরীর ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী সুজয়শ্রী রানী দাস ও সমাজ উন্নয়নের ক্ষেত্রে পারিজাত চন্দ্রাননা অর্চিকে ক্রেস্ট, সনদপত্র ও সম্মাননা প্রদান করা হয়।

জয়িতাদের সংবর্ধনা অনুষ্টানে বক্তারা বলেন, বেগম রোকেয়া বাংলাদেশের নারীমুক্তি আন্দোলনের পথিকৃৎ। সমাজে নারীকে মানুষ হিসেবে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি গড়ে তোলা, নারীর সামনে সব বাধা দূর করার সাহস, যুক্তি ও আত্মবিশ্বাস তৈরির জন্য আজীবন তিনি সংগ্রাম করেছেন। সমাজের সব বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বেগম রোকেয়া আজও প্রেরণার উৎস। বেগম রোকেয়ার ‘জাগো গো ভগিনী’ আহ্বানকে ধারণ করে সমাজের সব শোষণ, নির্যাতন, অন্ধত্ব, কুসংস্কার ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে নারী-পুরুষের মিলিত সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। রোকেয়া দিবসের চেতনাকে ধারণ করে নারী সমাজকে আরো বহুদূর এগিয়ে যেতে হবে। সেই সাথে সমাজের সকল প্রকার শোষণ নির্যাতনের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

অন্যান্য খবর পড়ুন