শিরোনামঃ

জুড়ীতে এসিল্যান্ডকে দেখে দোকান খোলা রেখে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা, অবশেষে জরিমানা

সাইফুল ইসলাম সুমনঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে এসিল্যান্ডকে দেখে দোকান খোলা রেখে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা, অবশেষে জরিমানা গুনতে হলো দোকানদারকে। বুধবার (৭ জুন ) উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ও লকডাউনের আওতাধীন দোকান খোলা রাখায় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করেন সহকারী কমিশনার ( ভূমি ) মোস্তাফিজুর রহমান।

সরেজমিনে দেখা যায়, জুড়ী বাজারের বেশ কয়েকটি কাপড়ের দোকান অর্ধেক শাটার খোলা রেখে কাপড় বিক্রি করছিল। এ সময় কয়েকজন দোকান মালিক ভ্রাম্যমান আদালতকে দেখে দৌড়ে পালিয়ে যান। কাপড় দোকানের পাশাপাশি শিশুপার্ক রোডের একটি জুতার দোকানের কর্মচারী ভ্রাম্যমাণ আদালতকে দেখে মালিককে ভিতর তালা দিয়ে চাবি নিয়ে চলে যায়। পরে ২০ মিনিট পর কর্মচারীকে খুঁজে এনে মালিককে দোকানের ভিতর থেকে উদ্ধার করে জরিমানা করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বুধবার সহকারী কমিশনার ( ভূমি ) মোস্তাফিজুর রহমান কর্তৃক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে জুড়ী উপজেলাধীন ভবানীগঞ্জবাজার, নিউমার্কেট ও শিশু পার্ক রোড এলাকায় সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ ও নির্মুল আইন ২০১৮ এর ২৫(২) ধারায় ১৫টি মামলায় ৩৩০০ টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া জনসাধারণের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করা হয় এবং বিধিনিষেধ এর আওতাধীন দোকান পাট সমূহ বন্ধ করা হয়। অভিযানকালে পুলিশ ও সেনাবাহিনী একটি দল অভিযানিক দলকে সহায়তা করে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, করোনা প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত এবং সরকারি নির্দেশ অমান্য করে দোকান খোলা রাখলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অন্যান্য খবর পড়ুন